দাঁড়ি নিয়ে বাঙালিয়ানা ভোজ এর ১৫% ডিসকাউন্ট দেখে ঝাঁপিয়ে পড়লাম

আমরা কি আসলেই মাছে-ভাতে বাঙালি!
শুধু বাংলা খাবারের বেলায় আমরা কাঙালি।😑

🪁সব কিছু কেমন যেন ঐতিহ্য কাতারে।
কেন যেন মাঝে মনে হয়, আমরাই এক সময় হয়ে যাবো ঐতিহ্য।

তাই মান্না দের কফি হাউস এখন শোনা যায় রিকশাওয়ালা ভাইয়ের সেই ঐতিহ্য কন্ঠে। হয়তো এই বাংলা গানটাই এক সময় ঐতিহ্য হয়ে দাড়াবে।
ছোট বেলায় দেখতাম এন্টেনা নাড়িয়ে বিটিভি।

সেটাও এখন ঐতিহ্য। ডিস লাইন টাও কেন যেন সিরিয়াল ধরে দাড়িয়ে আছে। হয়তো তরঙ্গে বলছে “আমিও তো এক সময় হয়ে যাবো ঐতিহ্য” এই ফেসবুক ইউটিউব ভার্চ্যুয়াল জগতের ভীড়ে। 😞

কিন্তু তারপরেও যেন রয়ে গেছে এই ট্রেডিশান ধরে রাখার চেষ্টা। আর নাম টাও দিয়েছে বাঙালিয়ানা ভোজ

আমাদের দেশে আপাতত বাংলা খাবার দিলে, তার নাম হয় হোটেল অথবা রেস্তোরা। সুন্দর ডেকোরেশন করতে গেলেই, যেতে হবে চাইনিজ রোমে।

বলছি আর কিহ, চাইনিজ ফুডে।
বুফে তো অনেক খেয়েছি, কিন্তু চাইনিজ অথবা থাই কালচার বুফে। বাঙালী বুফে এখনো যাওয়া হয়নি।

এই রেস্টুরেন্ট থেকে সব থেকে বেশি যা আমাকে আকৃষ্ট করেছে, সেটি হলো ১৫০টাকার প্লাটার। এটিকেই আমি নাম দিয়েছি বাঙালি বুফে। এই টাকাতে ভাত সাথে ১১টি আইটেমের ভর্তা আনলিমিটেড। এটা পুরাই জুস ছিলো😇

আমি এই প্লাটারের সাথে অর্ডার করেছিলাম আরো কয়েকটি আইটেম। ভেবেছিলো খাবার যদি কলাপাতা করে দিতো, তাহলে আরো বেশি জুস হতো।😇

১। আনলিমিটেড ভাত,ভর্তা (১১ আইটেম) ও ডাল – ১৫০ টাকা😮প্রতি জন


২। হাঁসের মাংস – ২০০ টাকা


৩। পাবদা মাছ ভুনা – ১৫০ টাকা

প্লেস ৯/১০

বিহেভিয়ার ১০/১০

ঠিকানা: শেখ রাসেল স্কয়ার পাশ্চিম পান্থপথ (পাশ্চিম পান্থপথ জামে মসজিদের বিপরিত) ঢাকা

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *